বিশ্বকাপ ২০১৮: গ্রুপ ডি পূর্ব পর্যালোচনা (ক্রোয়েশিয়া, নাইজেরিয়া)

ক্রোয়েশিয়া

বর্তমান ফিফা র‍্যাঙ্কিং: ১৮

বিশ্বকাপের চেহারা: ২০১৮ সালে ৫ম বারের মত

বিশ্বকাপ ২০১৪: গ্রুপ পর্যায় থেকে বাদ

বিশ্বকাপ ২০১৮: গ্রুপ ডি
Source: Twitter

বিশ্বকাপ আর ক্রোয়েশিয়া এই দুটি বিষয় একসাথে আলোচনায় আসলেই সবার চোখে ভেসে ওঠে সেই ১৯৯৮ সালের স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রথম বিশ্বকাপে খেলতে যাওয়া ক্রোয়েটদের চমকের কথা। এর আগে যুগোস্লাভিয়ার অংশ হিসেবে হয়ে থাকা ক্রোয়েশিয়া ১৯৯১ সালে স্বাধীন হবার পর প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে যায় ১৯৯৮ সালে, আর গিয়েই অর্জন করে তৃতীয় স্থান। তবে পরে আরো তিন বিশ্বকাপ খেললেও এই আর্জনের ধারে কাছেও যেতে পারে নি তাঁরা।

প্লেঅফ খেলে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে সুযোগ পাওয়াকে বাছাইপর্বের একরকম  নিয়মিত দৃশ্যই বানিয়ে ফেলেছে ক্রোয়েটরা। এবারও ইউরোপের আই গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় হওয়া ক্রোয়েশিয়া প্লেঅফের দুই ম্যাচ মিলিয়ে গ্রিসকে ৪-১ গোলে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করে।

ক্রোয়শিয়ার এবারের দলটা মোটামুটি তারকা সমৃদ্ধই বলতে হবে। মাঝমাঠে আছেন রিয়াল মাদ্রিদ আর বার্সেলোনার দুই কান্ডারি লুকা মদরিচ আর ইভান রাকিতিচ। আর আক্রমণ ভাগে আছেন মারিও মানজুকিচ আর ইভান পারিসিচ এর মত তারকারা, যারা কিনা যেকোনো দলের রক্ষণভাগেরই ভাল পরীক্ষা নিতে সক্ষম। আর লোভরেন আর ভারসালজেকো দের নিয়ে ক্রোয়েশিয়ার রক্ষণভাগটাও বেশ জোড়ালোই বলতে হবে।

World Cup 2018 Croatia
Source: FIFA.com

ক্রোয়েশিয়া বিশ্বকাপ স্কোয়াড

কোচঃ জেলাতকো দালিচ

গোলকিপার: ড্যানিয়েল সুভাসিচ (মোনাকো), লাভর কালিনিচ (জেন্ট), ডমিনিক লিভকোভিচ (দিনামো জাগরেব)।

ডিফেন্ডার: ভিডরান করুলুকা (লোকোমটিভ মস্কো), ডামাগোজ ভিডা (বেসিক্তাস), ইভান স্ট্রিনিচ (স্যাম্পদোরিয়া), ডেঞ্জেন লভরেন (লিভারপুল), সিমে ভারসালজেকো (এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ), জোশিপ পিয়ারিচ(ডায়নামো কিয়েভ), টিন জেদেভেজ (বায়ার লিভারকুসেন), ডুয়ে কালেতা -কার (রেড বুল স্যালজবুর্গ)

মিডফিল্ডার: লুকা মদরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), ইভান রাকিতিচ (বার্সেলোনা), মাতেও কোভেচিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), মিলান বেদেলজ (ফাইওরন্টিনা), মার্সেলো ব্রোজোভিচ (ইন্টার মিলান), ফিলিপ ব্র্যাডেরিচ (রিজেক)।

ফরোয়ার্ড: মারিও মানজুকিচ (জুভেন্টাস), ইভান পেরিসিচ (ইন্টার মিলান), নিকোলা কালিনিচ (এসি মিলান), আন্দ্রেজ ক্র্যামারিচ (হফেনহেম), মার্কো জাকা (শালকে), এন্টা রেবিচ (ইন্ট্রাচ্যাচ ফ্রাংকফুর্ট)।

তবে ব্রাজিল বিশ্বকাপেও তাঁরা দল হিসেবে কম শক্তিশালী ছিল না, কিন্তু মাঠের পারফর্মেন্সে সেই শক্তিমত্তা দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়তে হয় তাঁদের। আর তাই ক্রোয়েটরা এবার  সেই ২০ বছর আগের ফ্রান্স বিশ্বকাপের স্মৃতি ফিরিয়ে আনতে পারবে কিনা তা সময়ই বলে দেবে।

নাইজেরিয়া 

বর্তমান ফিফা র‍্যাঙ্কিং: ৪৭

বিশ্বকাপের চেহারা: ২০১৮ সালে ৬ষ্ঠ বারের মত

বিশ্বকাপ ২০১৪: গ্রুপ অফ ১৬

World Cup 2018 Nigeria
Source: The Government and Business Journal

আফ্রিকার ‘সুপার ঈগল’ নাইজেরিয়া এবারের বিশ্বকাপে একমাত্র আফ্রিকান দল যারা গত ব্রাজিল বিশ্বকাপও  খেলেছিল। আসলে ১৯৯৪ সালে প্রথম বারের মত বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়া নাইজেরিয়াই হল বিশ্বকাপের চূড়ান্ত মঞ্চে সুযোগ পাওয়া সবচেয়ে ধারাবাহিক দল। ২০০৬ সালের জার্মান বিশ্বকাপ ছাড়া বাকি সব কটিতেই তাঁদের সরব উপস্থিতি ছিল।

এবারের বাছাইপর্বে আফ্রিকা অঞ্চলের সবচেয়ে কঠিন গ্রুপ বি এর শীর্ষে থেকে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করেছে তাঁরা। টিকিট নিশ্চিত করেছে বললে ভুল হবে, তাঁরা আফ্রিকান নেশনস কাপ চ্যাম্পিয়ন জাম্বিয়া আর ক্যামেরুনকে এক প্রকার হেসে খেলেই  টপকে বিশ্বকাপে এসেছে। তাই তাদের কাছে প্রত্যাশাটা একটু বেশি বলতেই হবে।

নাইজেরিয়া দলের আক্রমন ভাগের মূল তারকা হিসেবে থাকছেন চেলসির ভিকটর মোসেস। তার সাথে থাকছেন অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার মিখাইল জন ওবি। আর ডিফেন্সে আছেন লিওন বেলগুনের মত তুলনামূলক অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার। আর ২০১৬ সালে কোচ হিসেবে নিয়োগ পাওয়া গরনেট রোহর দুই বছরে মোটামুটি ভালভাবেই দলকে সাজিয়ে নিয়েছেন।

victor moses nigeria
Source: Daily Post Nigeria

নাইজেরিয়া বিশ্বকাপ স্কোয়াড

কোচঃ গারনেট রহোর

গোলকিপার: ফ্রান্সিস উজোও (ডিপোর্টিভো লা করুনা), আইখচুকু ইজেনওয়া (এনাইমবা), ড্যানিয়েল আকপেই (চিপা ইউনাইটেড)।

ডিফেন্ডার: উইলিয়াম ট্রোস্ট-একং ও আবদুল্লাহ ছিহু (ব্রুসসপার), টাইরান ইবেই (আদো ডেন হেগ), এল্ডারসন এচিজাইল (সিরাকল ব্রুগে কেএসভি), ব্রায়ান আইডোউ (আমকর প্যারম), চিজোজী আওয়াজিম (নান্টেস এফসি), লিওন বেলগুন (ব্রাইটন), কেনেথ ওমরুও (কাসিমম্পাশ)

মিডফিল্ডার: মিখাইল জন ওবি (তিয়েনজিন টিদা), ওজিনি ওজাজি (ট্র্যাবজোনসপের), উইলফ্রেড নদিদি (লিসেস্টার সিটি), ওগেনেককর ইট্বো (লাস প্যালমাস), জন ওগু (হ্যাপোল বিয়ার শেভা), জোয়েল ওবি (টরিনো, ইতালি)।

ফরওয়ার্ড: আহমেদ মুসা (সিএসকেএ মস্কো), কেলিচি ইহেনচো (লিসেস্টার সিটি), ভিক্টর মোসেস (চেলসিয়া), ওদিয়ন ইগালো (চিংচুন ইয়াতাই), অ্যালেক্স আইভবি (আর্সেনাল), শিমনন নওয়াবকো (ক্রোটোনে)।

বিশ্বকাপের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত কোন আফ্রিকান দল সেরা চারে পৌঁছাতে পারে নি। এবারের বিশ্বকাপে গ্রুপ অফ ডেথে পড়া নাইজেরিয়া যে অপূর্ণতা ঘোচাতে পারবে তা বলা আসলেই কঠিন। তবে দেখা যাক সময় কি নিয়ে অপেক্ষা করছে।

অনুযায়ী ১৬ই জুনের ক্রোয়েশিয়া বনাম নাইজেরিয়া ম্যাচের বেটিং রেট হল, ক্রোয়েশিয়ার জয়ের রেট ১.৬৫ আর নাইজেরিয়ার জয়ের জন্যে ৫.৫০।

, , , , , , , , , , , , ,

61 thoughts on “বিশ্বকাপ ২০১৮: গ্রুপ ডি পূর্ব পর্যালোচনা (ক্রোয়েশিয়া, নাইজেরিয়া)

  1. Have you ever thought about adding a little bit more than just your
    articles? I mean, what you say is fundamental
    and all. Nevertheless think of if you added some great photos or
    video clips to give your posts more, “pop”! Your content is excellent but with images
    and clips, this site could certainly be one of the most beneficial in its field.
    Wonderful blog!

  2. I don’t know if it’s just me or if perhaps everybody else encountering issues with your blog.
    It seems like some of the text in your posts are running off the screen.
    Can someone else please comment and let me know if this is happening to them as well?
    This might be a problem with my browser because I’ve had this
    happen before. Many thanks

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।