বিশ্বকাপ ২০১৮: গ্রুপ এ পর্যালোচনা পর্ব ১ (মিশর ও সৌদি আরব)

মিশর

ফিফা র‍্যাঙ্কিং: ৪৬

বিশ্বকাপের উপস্থিতি: ২০১৮ সালে তৃতীয়বারের মতো

বিশ্বকাপ ২০১৪: কোয়ালিফাই করতে পারে নি

বিশ্বকাপ ২০১৮
Source: МанВал

মোহামেদ সালাহর আগে আন্তর্জাতিক ফুটবল দুনিয়ায় ফারাওরা তেমন একটা জনপ্রিয় ছিল না। সাম্প্রতিক সময়ে যদি কেউ ফুটবল সম্পর্কে বিশেষ করে ইউরোপীয় ফুটবল সম্পর্কে কোন খোজখবর রাখে তবে সে অবশ্যই জানবে মিশর হচ্ছে মোহাম্মদ সালাহর জাতীয় দল।

মিশর ১৯৩৪ সালের দ্বিতীয় বিশ্বকাপের সদস্য ছিল। আর ১৯৯০ সাল পর্যন্ত এটি ছিল তাদের প্রথম ও শেষ বিশ্বকাপের উপস্থিতি। সেই ১৯৯০ সাল থেকে ঠিক ২৮ বছর পর ফেরাওরা এই বছর তৃতীয় বারের মত বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে।

আফ্রিকান অঞ্চলের গ্রুপ ই এর শীর্ষে থেকে এবারের বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে মিশর। তাঁরা তাদের গ্রুপের শীর্ষ বাছাই হিসেবেই নয়, আফ্রিকা মহাদেশ থেকে প্রথম জাতি হিসেবে তাঁরাই ২০১৮ বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। বিস্বকাপের টিকেটের লড়াইয়ে তাঁরা তাঁদের গ্রুপ থেকে উগান্ডা, ঘানা এবং কঙ্গোকে পিছনে ফেলে।

সালাহ
Source: eNCA

আসলে, সালাহর আবির্ভেবের পূর্বে মিশরীয় ফুটবল সম্পর্কে তেমন একটা ধরনা ছিল না কারর ই। যদিও সালাহ আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার দেশের একজন মহান প্রতিনিধি, কিন্তু তিনি আসলে তাঁর জাতীয় দলের একটি অংশ মাত্র। মিশর দলে আরো অনেকেই আছে যাদের উপর আপনার বিশেষ নজড় রাখতেই হবে।

মিশর বিশ্ব কাপ দল

মিশর এখনো তাদের প্রধান দল ঘোষণা করেনি তবে ২৯ সদস্যের একটি প্রাথমিক বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা করেছে।

কোচ: হেক্টর কুপার

গোলকিফর: ইসাম এল-হাদারী (আল-তাওউন), মোহাম্মদ এল-শেনওয়য়ি (আল আহালি), শেরিফ একরামী (আল আহলির), মোহাম্মদ আওয়াড (ইসমাঈলী)।

ডিফেন্ডার: আহমেদ ফায়েই (আল আহ্লী), সাদ সামির (আল আহ্লী), আইমান আশরাফ (আল আহলির), মাহমুদ হামদি “এল উইন্স” (জামালেক), মোহাম্মদ আবদেল শাফি (আল ফাৎ), আহমেদ হেগাজি (ওয়েস্ট ব্রোম), আলী গ্যাবর (ওয়েস্ট ব্রোম), আহমেদ এল মোহামাদি (এস্টন ভিলা), করিম হাফেজ (আর.সি. লেন্স), ওমর গাবের (এলএ এফসি), আমরো তারেক (অরল্যান্ডো সিটি)।

মিডফিল্ডার: তারেক হামেদ (জামালেক), মাহমুদ আবদেল আজিজ (জামালেক), শিখবাওলা (আল রেড), আব্দুল্লাহ এল সাইদ (কেইউপিএস), স্যাম মোরসী (উইগান), মোহাম্মদ এলনেনি(আর্সেনাল), মাহমুদ “কাহরাবা” (ইত্তিহাদ), রামাদান সোহী (স্টোক সিটি), মাহমুদ “ট্রেজেগেট” (কাসিমপাসা), আমর ওয়ার্দা (অ্যাট্রোমিটস)।

ফরওয়ার্ড: মারওয়ান মোহসিন (আল আহ্লী), আহমেদ গোমা (আল মাসরি), আহমেদ হাসান “কোকা” (এসসি ব্রাগা), মোহাম্মদ সালাহ (লিভারপুল)

এখন দেখার বিষয় এই যে লিভারপুলের টিম কোম্বিনেশনের বাইরে বেরিয়ে নিজ দেশের জন্য মোঃ সালাহ কতটা সফল হতে পারেন।

সৌদি আরব

ফিফা র‍্যাঙ্কিং: ৬৭

বিশ্বকাপের উপস্থিতি: ২০১৮ সালে ৫ম বারের মত

বিশ্বকাপ ২০১৪ : কোয়ালিফাই করতে পারে নি

Source: Arab News

সৌদি আরব ৫ম বিশ্বকাপ খেলতে রাশিয়ায় যাচ্ছে। ১৯৯৪ সালে সৌদি তাঁদের ইতিহাসে প্রথম বারেরে মত বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। এমনকি তাঁরা সেইবার টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছেছিল। এরপর পরবর্তী তিনটি বিশ্বকাপেই তাঁরা তাঁদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে পারলেও আর দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার সৌভাগ্য হয় নি।

আর শেষ দুই বিশ্বকাপে তো তাঁরা কোয়ালিফাই ই করতে পারে নি। এই বছর তারা এশিয়ার গ্রুপ বি থেকে জাপানকে সঙ্গী করে রাশিয়া বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছে।

সৌদি আরব তাঁদের রাশিয়া মিশনের প্রধান স্কোয়াড ইতিমধ্যেই ঘোষণা করে ফেলেছে ।

সৌদি আরব বিশ্বকাপ দল

কোচ: জুয়ান এন্টোনিও পিজ্জি

গোলকিপার: ওয়ালীদ আব্দুল্লাহ, ইয়াসের আল মোসাইল, মোহাম্মদ আল ওয়েস

ডিফেন্ডার: মনসুর আল হারবি, সাঈদ আল মওলাদ, ইয়াসির আল শাহরানী, মোতাজ হুসাউ, ওমর হাওসওয়ী, ওসামা হাওসাবী, মোহাম্মদ জাহাফালী, হাসান মুয়াত

মিডফিল্ডার: নওয়াফ আল আবেদ, সালাম আল দাউসারী, সালমান আল ফারাজ, তাসির আল জাসিম, আবদমালেক আল খাইবরি, সালমান আল মোশার, হুসাইন আল মোঘাহ্ভি, ফাহাদ আল মুওয়ালাদ, ইয়াহিয়া আল শেহরি, আবদুলতফাত্ আসিরি

ফরওয়ার্ড: মোহাম্মদ আল সাহলউই, মুহিনাদ আসিরি

চিলিকে ২০১৬ সালে টানা দ্বিতীয় কোপা আমেরিকা জেতানো কোচের হাত ধরে তাঁরা কত দূর যেতে পারে এখন সেটাই দেখার বিষয়।

, , , , , , , , ,