ফ্রান্সঃ বিশ্বকাপ শিরোপার লড়াইয়ে ফ্রান্স

কোয়ালিফাইং রাউন্ডে নেদারল্যান্ডকে হারিয়ে 20১৮ বিশ্বকাপ শিরোপার লড়াইয়ে ফ্রান্স মূলপর্বে তাদের জায়গা করে নেয়। এরপর শুরু হয় ফিফার অফিসিয়াল গ্রুপ নির্বাচনী পর্ব।

যেখানে লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত হয়ে ফ্রান্স অস্ট্রেলিয়া, সুইডেন এবং ডেনমার্ক-এর সাথে গ্রুপ সি তে জায়গা পায়। এরপর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের সূচনা হয়।

Source: FIFA

 

গ্রুপ সেরা ফ্রান্সঃ

১৬ জুন  ২০১৮ রাশিয়ার কাজান অস্ট্রেলিয়ার সাথে খেলা দিয়ে শুরু হয় ফ্রান্সের ২০১৮ বিশ্বকাপ যাত্রা। অস্ট্রেলিয়ার সাথে প্রথম খেলায় ২-১ ব্যবধানে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ফ্রান্স জয়লাভ করে।

অস্ট্রেলিয়া ডি বক্সের ভিতরে ফাউল করলে পেনাল্টি সুযোগ পায় এবং সেই সুবর্ণ সুযোগকে কাজে লাগায় গ্রিজম্যান।

তিনি ফ্রান্সকে ১-০ গোলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এগিয়ে রাখে।

পরবর্তীতে অস্ট্রেলিয়া ফ্রান্সের বিপক্ষে পেনাল্টি সুযোগ পায় এবং সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে তারা খেলায় সমতা ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

খেলার শেষার্ধে ফ্রান্সের পক্ষ থেকে উজীর করা সুট গোলকি বারে বাধা পেয়ে গোল লাইন ক্রস করে এবং আবেদন করে ভি এ আর এর সাহায্য নিয়ে তারা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় লাভ করে।

গ্রুপ পর্বের বাকি দুটি খেলার মধ্যে একটিতে তারা গোলশূন্য ড্র করে এবং অপরটিতে   ১-০ ব্যবধানে জয়লাভ করে গ্রুপ সেরা হয়ে নকআউট তাদের স্থান করে নেয়।

Source: Frenchly

 

নকআউট পর্বঃ

নকআউট পর্বে তাদের প্রতিপক্ষ হয় শক্তিশালী আর্জেন্টিনা। সেখানে এক শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচের মুখোমুখি হয় গোটা ফুটবল বিশ্ব।

খেলার প্রথমার্ধে আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার ডি বক্সের ভেতরে ফাউল করলে রেফারি ফ্রান্সের পক্ষে পেলান্টি দেয় এবং পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্স ১-০ গোলে এগিয়ে যায়।

পরবর্তীতে আর্জেন্টিনার ডি মারিয়া এবং মেসির দুর্দান্ত দুটি গোল আর্জেন্টিনাকে খেলায় এগিয়ে রাখে।

তার সঙ্গে সঙ্গেই ফ্রান্সের স্ট্রাইকার বাপার্ড এর দুর্দান্ত এক শটে ফ্রান্স খেলায় সমতা ফিরিয়ে নিয়ে আসে ।

তার পরেই যেন ফ্রান্স অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠে। এক কৌশল দীপ্ত গোলে ফ্রান্স খেলায় আবার এগিয়ে যায়।

আর্জেন্টিনা খেলার শেষের দিকে আরেকটি গোল করলেও এমবাপের করা চতুর্থ গোল আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ৪-৩এর জয় এনে দেয়।

এই জয় ফ্রান্সকে ফাইনালের দিকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যায়।

Source: Uncova

 

কোয়ার্টার ফাইনালঃ

ফ্রান্স উরুগুয়ের সাথে কোয়ার্টার-ফাইনালের ২-০ গোলে জয়লাভ করে সেমিফাইনালে পৌঁছে। পল পগবা ফ্রান্সের হয়ে একটি গোল করেন।

এরপর উরুগুয়ের গোলকিপারের ভুলের কারণে গ্রিজম্যান আরেকটি গোল করার সুযোগ পান।

সেটাকে কাজে লাগিয়ে ফ্রান্স উরুগুয়েকে ২-০ গোলে পরাজিত করে সেমিফাইনালে বেলজিয়ামে প্রতিপক্ষ হয়।

নক আউট থেকে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছাতে তারা যতগুলো জয়লাভ করেছে প্রত্যেকটি ম্যাচে জয়ের ব্যবধান ছিল ১টি মাত্র গোল। কোয়ার্টার-ফাইনালে শুধুমাত্র তারা দুই গোলের ব্যবধানে প্রতিপক্ষকে পরাজিত করতে সক্ষম হয়।

Source: Hindustan Times

 

সেমিফাইনালঃ

বেলজিয়ামকে হারানো সেমিফাইনালে ফ্রান্সের জন্য খুব একটা সহজ হয়নি। সম্পূর্ণ খেলায় উভয় দলই সমান  নৈপূর্ণতা প্রদর্শন করতে সক্ষম হয়েছে।

তবে দুই দলের গোলরক্ষক এর কথা না বললেই নয়। তাদের আক্রমণ গুলোকে বেলজিয়ামের গোলকিপার ক্ষিপ্রতা এবং নৈপুণ্য তার সাথে প্রতিহত করতে সক্ষম হয়।

তবে খেলার দ্বিতীয়ার্ধের পরে ফ্রান্স একটি কর্ণার থেকে উমতিতির সাহায্যে তাদের একমাত্র জয়সূচক গোলটি করে।

এর মাধ্যমেই তারা ২০১৮ এর ফাইনাল নিশ্চিত করে।

Source: The Australian

 

পরিশেষে বলা যায় শুধু ক্ষিপ্রতার সাথে এ খেলায় জয়লাভ করা সহজ নয় এবং ফ্রান্স সেটি খুব ভাল করেই জানে।

তারা এখন পর্যন্ত যে ধৈর্য এবং শৈল্পিক খেলা প্রদর্শন করতে সক্ষম হয়েছে ।

এটি তাদেরকে শিরোপা অর্জন করতে সাহায্য করবে, তাছাড়া ও তাদের রয়েছে একটি শক্তিশালী রক্ষণভাগ।

সব শেষ কথা হল ফ্রান্স জানে যে তারা অগ্রগামী এবং বিজয়ের মুকুট থেকে তারা আর মাত্র একটি জয় দূরে।

 

, , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,