এশিয়ান গেমস এ বাংলাদেশের ইতিহাস, বিশ্বকাপ আয়োজক কাতার কে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ 

এশিয়ান গেমস ফুটবলে নিজেদের গ্রুপের শেষ ম্যাচে কাতারকে ১-০ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে অনূর্ধ্ব ২৩ ফুটবল দল।ফিফা র্যাংকিংয়ে ৯৬ ধাপ এগিয়ে থাকা ২০২২ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক কাতারকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এশিয়ান গেমসের দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছলো বাংলাদেশ।

ভাবা যায় একটি  দলের পারফর্মেন্সের উপরে কতটা অনাস্থা থাকলে সে দেশের ম্যানেজমেন্ট তাদের আগাম ফিরতি টিকিট কাটিয়ে রাখে! হ্যা, এমনটাই করেছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। আগামী ২১ তারিখ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ২৩ ফুটবল দলের দেশে ফেরার আগাম বিমান টিকিট কেটে রেখেছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। কিন্তু সে টিকিট বাতিল করতে মনে হয় না এখন একটুও কষ্ট হবে বাফুফের। কারণ এক অসামান্য অর্জনের মাধ্যমে ছেলেরা যে ইন্দোনেশিয়া সফরটা আরো দীর্ঘ করে ফেলেছে।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে উজবেকিস্তানের সাথে ৩-০ গোলে হারে বাংলাদেশ, কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচেই থাইল্যান্ডের সাথে ১-১ গোলের অসাধারণ এক এ ড্রতে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। এরপরই শুরু হয় হিসেব-নিকেশের খেলা। যদি কাতারকে হারানো যায়, আর থাইল্যান্ড যদি হারে উজবেকিস্তানের সাথে তবেই মিলবে দ্বিতীয় রাউন্ডে টিকিট। কাতারের সাথে ড্র করলেও ক্ষীণ সম্ভাবনা থাকত, যদি থাইরা উজবেকদের কাছে অন্তত চার গোলের ব্যবধানে হারতো। আর কাতার কে হারিয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে সমীকরণটা সহজ মিলিয়েই দ্বিতীয় রাউন্ডে গেল বাংলাদেশ।

এশিয়ান গেমস এ বাংলাদেশের ইতিহাস, বিশ্বকাপ আয়োজক কাতার কে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ 
Source: Bangladesh Football Federation

ইতিহাস গড়তে হলে জিততে হবে, আর এই মন্ত্র খুব ভালোভাবে যোপেই মাঠে নামেছিল জেমি ডের শিষ্যরা।

তবে ম্যাচের শুরুটা হয় সুফিলের গোল মিস করা দিয়ে। একবার তার বাঁ পায়ের শট কাতারের গোলপোস্টের দ্বিতীয় বার ঘেষে চলে যায়, এরপরে ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগটি মিস করেন তিনি। ১৭ তম মিনিটে কাতারের গোলকিপার কে একা পেয়েও বল জালে পাঠাতে ব্যর্থ হন বাংলাদেশ দলের এই স্ট্রাইকার।

তবে বিরতির আগে লিড পেতে পারত কাতারও, বাংলাদেশের ডি বক্সের বাইরে থেকে কাতারের নেয়া ফ্রিকিক ফিরে আসে গোলবারে লেগে। এভাবেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

এশিয়ান গেমস এ বাংলাদেশের ইতিহাস, বিশ্বকাপ আয়োজক কাতার কে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ 
Source: Dhaka Tribune

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আবারো গোলের সুযোগ মিস করে বাংলাদেশে, বক্সের মধ্যে থেকে নেয়া বিপলুর শট ফিরিয়ে দেন কাতারের গোলরক্ষক। এরপরে অবশ্য কয়েকবার আক্রমণের চেষ্টা করে কাতারাও, কিন্তু গোল আদায়ে ব্যর্থ হয় তারাও। আর তাই ম্যাচের ভাগ্যটা গোলহীন ড্র ই লেখা হয়ে গিয়েছিল প্রায়।

কিন্তু কথায় আছে “শেষ ভাল যার সব ভাল তার।” ম্যাচের নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা তখন শেষ, কিন্তু ম্যাচের আসল নাটকটাই যে তখনো বাকি।

ম্যাচের ইনজুরি টাইম এর তৃতীয় মিনিটে কাতার ডি বক্সের বাম দিক থেকে বল নিয়ে ঢোকেন বাংলাদেশের অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া। গোলকিপার কিছু বুঝে ওঠার আগেই শট নেন তিনি, আর তার সেই গড়ানো শট কাতারের গোলপোস্টের প্রথম বার ঘেঁষে ঢুকে যায়  জালে। আর এতেই রচিত হয় বাংলাদেশ ফুটবলের এক অনন্য ইতিহাস। প্রথমবারের মতো এশিয়ান গেমসের দ্বিতীয় রাউন্ডে নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।

 

এশিয়ান গেমস এ বাংলাদেশের ইতিহাস, বিশ্বকাপ আয়োজক কাতার কে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে বাংলাদেশ 
Source: Risingbd

এটি আসলেই বাংলাদেশ ফুটবলের জন্য এক উদযাপন করার মতোই অর্জন। এই জয় দেশের ঘুমন্ত ফুটবল যে পেয়েছ এক নতুন দিগন্তের আশা। এখন সামনে দ্বিতীয় রাউন্ড, যেখানে বাংলাদেশের হারানোর কিছুই নেই। তাই প্রত্যাশার চাপটাও নেই বললেই চলে।

আর এই অর্জনটাই বা কম কিসের। ইন্দোনেশিয়ার মাটি থেকে ফিরে পাওয়া হারানো আত্মবিশ্বাস টা সঙ্গী করেই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ ফুটবল। এমনটাই আশা বাংলাদেশের কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমীদের। আমরা তেমনটাই আশা করি।

এই অর্জনের জন্য বাংলাদেশ ফুটবল দলকে আন্তরিক ধন্যবাদ এবং প্রাণঢালা অভিনন্দন।

, , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,