উয়েফা ন্যাশনস লিগঃ ইংল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া, ইংল্যান্ড কি পারবে ক্রোয়েশিয়াকে হারাতে?

আপনি যদি আসলেই এর উত্তর খুঁজে পেতে চান তাহলে আপনাকে আজরাতের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কারণ আজরাত ৮টায় লন্ডনে ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম এ উয়েফা ন্যাশনস লিগ এর ম্যাচে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ইংল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া ।

গেল কয়েক মাসের ব্যাবধানে দুই দলই বিশ্বকাপ সেমি-ফাইনাল সহ দুইবার একে অপরের বিপক্ষে খেলেছে এবং দুইম্যাচের একটিতেও ইংল্যান্ড কোন জয়ের দেখা পায়নি। যদিও শেষ ম্যাচটি ড্র ছিল।

উয়েফা ন্যাশনস লিগঃ ইংল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া, ইংল্যান্ড কি পারবে ক্রোয়েশিয়াকে হারাতে?
Image Source: YouTube

ম্যাচ পূর্ববর্তী স্কাইস্পোর্টস কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে সাউথগেট বলছিল, “আমরা অবশ্যই তাদের বিপক্ষে গেল কয়েক ম্যাচ খেলেছি এবং আমরা তাদের খেলার ধরণ সম্পর্কে অবগত, তাদের পছন্দের খেলোয়াড় এবং কোন জায়গাতে তারা বেশি শক্তিশালী। “

যদি ইংল্যান্ড আজকের ম্যাচ জিতে যায় তাহলে তারা পরবর্তী গ্রীষ্মকালীন ন্যাশনস লিগ ফাইনালে পৌঁছে যাবে। আজকের ম্যাচে যে জিতবে সে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে আর যে হারবে তাকে লীগ বি তথা ২য় ডিভিশনের ম্যাচ খেলে আবার ১ম লীগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। আর যদি আজকের ম্যাচ ড্র হয় হয় তাহলে স্পেনকে আমরা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে দেখতে পাব।

আসলে আজকের খেলার ফলাফল সম্পর্কে কোন কিছু বলা মুশকিল। কারণ উভয় দলেই অনেক মান সম্মত খেলোয়াড় রয়েছে এবং তারা প্রথম থেকেই গোল করার চেষ্টা চালিয়ে যাবে। কিন্তু একটা জিনিস অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে – ইংল্যান্ড অনেক শক্ত প্রতিপক্ষ এবং তাদের হোম ভেনুতে গিয়ে জেতা অনেক দুস্কর।

স্পষ্টত ক্রোয়েশিইয়ায় লুকা মদ্রিচ, বিশ্বের অন্যতম ফুটবল খেলোয়াড়দের মাঝে অন্যতম যিনি রিয়াল মাদ্রিদের মিড ফিল্ডারও বটে যা হ্যারি কেইন প্রেস মিটিং এ তার বক্তব্যে উল্লেখ করেছিল কিন্তু মাঞ্জুকিচের অবসর ইংল্যান্ডের জন্য এক বড় পাওয়া। ইংলিশ সমর্থকেরা কিভাবে তাকে ভুলে থাকতে পারে!

ক্রোয়েশিয়ার কোচ জলাতকো দালিচ বলেনঃ “আমরা তাদের বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে হারিয়েছি। এইটাই অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কেউ তা ভুলতে পারে না। ওইটাই তিন ম্যাচের মধ্যে সব থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ফলাফল।

উয়েফা ন্যাশনস লিগঃ ইংল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া, ইংল্যান্ড কি পারবে ক্রোয়েশিয়াকে হারাতে?
Image Source: The Telegraph

ক্রোয়েশিয়া স্পেনের কাছে ৬-০ ব্যবধানে হারলেও তারা ঠিক পরের ম্যাচে ৩-২ গোলের ব্যবধানে জয়ের ধারায় ফিরে আসে। কোন একটি দলকে একটি ম্যাচ দিয়ে বিবেচনা করা এমন যে কেউ বই না পড়ে বইয়েরমলাট দেখেই বইকে বিচার করছে। এটা ফুটবল! এখানে যে কোন সময় যে কোন কিছু ঘটে যেতে পারে।

একটি মজাদার পরিসংখ্যান এখানে উল্লেখ করছি। ইংলিশ ফ্যানদের মনে বসন্তের হাওয়াও বইতে পারে। ইংল্যান্ড তাদের ঘরের মাঠে শেষ ৪ ম্যাচের একটিতে কেবল ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে হারে যা ছিল ২০০৭ সালে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা।

এখন পর্যন্ত দুই দলের মুখোমুখি দেখা হয়েছে ৯ বার যার ভিতর ইংল্যান্ড জিতেছে ৪ বার, ক্রোয়েশিয়া জিতেছে ৩ বার আর বাকি দুই বার ম্যাচ ড্র হয়েছিল। এখন ১০ম বারের খেলায় ফলাফল কি হয় তা জানার জন্য আজকে আপনাকে রাত পর্যন্ত অবশ্যই অপেক্ষা করতে হবে।

ইংল্যান্ডের সম্ভাব্য শুরুর লাইনআপ:

পিকফোর্র; ওয়াকার, গোমেজ, ম্যাগুয়ার,শ; অ্যালি, হেন্ডারসন, বারক্লি; স্টার্লিং, কেইন, রাশফোর্ড

ক্রোয়েশিয়া সম্ভব শুরুর লাইনআপ:
কালিনিচ; ভারসালজকো, লভ্রেন, ভিদা, জেদভাজ; মদ্রিচ, ব্রোজোভিচ, রাকিতিচ; ক্র্যামারিচ, রেবিচ, পেরিসিচ

, , , , , , , , , , , , , , ,